Home / খেলাধুলা / বৃষ্টিতে কি কপাল পুড়বে ইংল্যান্ডের?

বৃষ্টিতে কি কপাল পুড়বে ইংল্যান্ডের?

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকা প্রতিদিন.কম : এই মুহূর্তে বলা যায় বৃষ্টির উপর অনেকটাই মন খারাপ করে আছে ইংল্যান্ড দল। ওল্ড ট্রাফোর্ডে তৃতীয় টেস্টের চতুর্থ দিনে বৃষ্টি না হলে ইংল্যান্ড হয়তো তাদের সিরিজ নিশ্চিতই করতে পারতো। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দ্রুত সময়ের মধ্যে আটকাতেই ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট তৃতীয় দিন শেষ বিকেলের একেবারে শেষ মুহূর্তেই মাত্র ২২৬ রানেই ইনিংস ঘোষণা করে দিলেন তিনি।

কিন্তু রুট একভাবে চিন্তা করলে কি হবে, প্রকৃতির খেয়াল-খুশিকে তো মানতে হবে! একদিন আগে টেস্ট শেষ করে দিয়ে বিশ্রামে যাওয়ার যে চিন্তা তার ছিল, সেটাকে পুরোপুরি ভেস্তে দিতে চাচ্ছে বৃষ্টি। অর্থাৎ, ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে তৃতীয় টেস্টের আজ চতুর্থ দিনে বৃষ্টির বাগড়ায় এখনও পর্যন্ত মাঠেই নামতে পারেনি ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

তৃতীয় দিন শেষ বিকেলে ২ উইকেট হারিয়ে ২২৬ রানে রুট ইনিংস ঘোষণা করার পর জয়ের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৯৯ রান। জবাব দিতে নেমে দিনের শেষ মুহূর্তে মাত্র ৬ ওভার ব্যাটিং করে ১০ রান নিয়ে ২ উইকেট হারিয়ে বসে ক্যারিবীয়রা।

উইকেট দুটি একাই নেন স্টুয়ার্ট ব্রড। প্রথম ইনিংসে তার বোলিং দাপটেই মাত্র ১৯৭ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১৪ ওভার বোলিং করে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। এবার নিলেন আরও দুই উইকেট। ক্যারিবীয়দের বাকি ইনিংসে আর কয়টি উইকেট নেন তিনি সেটাই দেখার বিষয়।

ওপেনার জন ক্যাম্পবেল শূন্য রানে আউট হওয়ার পর নাইটওয়াচম্যান হিসেবে মাঠে নামেন কেমার রোচ। কিন্তু তিনিও পারলেন না। ব্রডের বলে মাত্র ৪ রান করে আউট হন। এরপর ২ রানে ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট এবং ৪ রানে ব্যাট করছেন রস্টোন চেজ।

দ্বিতীয় ইনিংসে ইংল্যান্ডের ওপেনার ররি বার্নস করেন ৯০ রান। ডোম সিবলি আউট হন ৫৬ রান করে। অধিনায়ক জো রুট অপরাজিত থাকেন ৬৮ রানে। এর আগের দুই টেস্টে একটি করে জিতেছে ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এই টেস্ট জিতলে সিরিজ জয় হয়ে যাবে ইংল্যান্ডের। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে দ্বিতীয় টেস্টেও বৃষ্টির কারণে একদিন পুরোপুরি ভেসে গিয়েছিল। তবুও জয় ইংল্যান্ডের।

ঢাকা প্রতিদিন.কম/এআর

Loading...

Check Also

কৃষকের ক্ষতি পোষাতে বন্যাপ্লাবিত এলাকা পর্যবেক্ষণের নির্দেশ কৃষিমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা প্রতিদিন.কম : বন্যায় কৃষকের ক্ষতি পোষাতে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের অতি দ্রুত বন্যাপ্লাবিত এলাকায় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *