Home / খেলাধুলা / ইতিহাস গড়তে বাংলাদেশের চাই ১২০ রান

ইতিহাস গড়তে বাংলাদেশের চাই ১২০ রান

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

দুই ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে। মিরপুর শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে ১১৯ সংগ্রহ করেছে সফরকারীরা। জয়ের লক্ষ্য ব্যাট করছে টাইগাররা।

জিম্বাবুয়ে স্কোর : ১১৯/৭ (২০)
বাংলাদেশ স্কোর : 

ইতিহাস গড়তে বাংলাদেশের চাই ১২০ রান

ক্রিকেটে ক্লিন সুইপ বলতে বোঝায়-একটি পূর্ণাঙ্গ সিরিজের সব ম্যাচেই জয় পাওয়া। নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে একাধিকবার ক্লিন সুইপ হলেও প্রতিপক্ষকে কখনো এই লজ্জা দিতে পারেনি বাংলাদেশ দল। তবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এবার সেই অনন্য রেকর্ডের দ্বারপ্রান্তে টাইগার শিবির। এই রেরকর্ডটি গড়তে হলে টাইগারদের টপকাতে হবে জিম্বাবুয়ের দেওয়া ১২০ রানের লক্ষ্য।

সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নামে শুরু থেকেই কোণঠাসা হয়ে থাকে সফরকারীরা। অভিজ্ঞ ওপেনার ব্রেন্ডন টেইলর ছাড়া বাকি সবাই আসা-যাওয়ার মাঝে থাকে। এক পাশ থেকে দলের হাল ধরে রাখেন এই ব্যাটসম্যান। শেষ পর্যন্ত খেলেন ৫৯ রানের অপরাজিত ইনিংস। ৪৮ বলে ৬ চার ১ ছক্কা তুলে নেন ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ টি-টুয়েন্টি অর্ধশতক।

টেইলরের ৫৯ রানের উপর ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১১৯ রান করে জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের পক্ষে মুস্তাফিজ ও আল-আমিন দুইটি করে এবং সাইফউদ্দিন, আফিফ ও মেহেদী একটি করে উইকেট শিকার করেন।

পাঁচ উইকেট হারিয়ে চরম বিপাকে জিম্বাবুয়ে

দলীয় ৯৭ রানে পাঁচ উইকেট হারিয়ে চরম বিপাকে পড়েছে জিম্বাবুয়ে। শেষ ২১ রান তুলতে সফরকারীরা হারায় তিন উইকেট। অলরাউন্ডার সিকান্দার রাজা, অধিনায়ক শন উইলিয়ামস ও উইসলে মাধেভেরের উইকেট হারায় ৭৬ থেকে ৯৭ রানে। উইলিয়ামসকে (৩) মুশফিকের তালুবন্দি করান মেহেদী হাসান। ৯৬ রানের মাথায় সাইফউদ্দিনের বলে আল আমিনের কাছে ক্যাচ তুলে দেন সিকান্দার রাজা (১২)। এক রান পর অর্থাৎ ৯৭ রানে মাধেভেরকে শিকার বানান আল-আমিন। ব্যক্তিগত ১ রানে সৌম্যের তালুবন্দি হন এই অলরাউন্ডার। জিম্বাবুয়ের হয়ে এখন ব্যাট করছেন ব্রেন্ডন টেইলর (৪৩) ও রিচমন্ড মুতুম্বামি (৩)।

আরভিনকে ফেরালেন আফিফ

ব্রেন্ডন টেইলর ও ক্রেইগ আরভিনের জুটিতে বড় স্কোরের দিকেই এগোচ্ছিল জিম্বাবুয়ে। তবে দলীয় ৬৯ রানের মাথায় তাকে সাজঘরে পাঠান তরুণ আলরাউন্ডার আফিফ হোসেন ধ্রুব। ১২তম ওভারের প্রথম বলেই সৌম্যের হাতে ক্যাচ তুলে দেন আরভিন। মাঠ ছাড়ার আগে খেলেন ৩৩ বলে ৩ চারে ২৯ রানের ইনিংস। জিম্বাবুয়ের হয়ে এখন ব্যাট করছেন ব্রেন্ডন টেইলর (৩১) ও শন উইলিয়ামস (৩)।

জিম্বাবুয়ে শিবিরে আল-আমিনের আঘাত

সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টি-টুয়েন্টি ম্যাচে জিম্বাবুয়ে শিবিরে প্রথম আঘাত হানলেন বাংলাদেশের আল-আমিন হোসেন। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই তিনি তুলে নিয়েছেন ওপেনার তিনাশে কামুনহুকামুয়ের উইকেট। এতে ১২ রানে ওপেনিং জুটি ভাঙে জিম্বাবুয়ের। তবে দ্বিতীয় উইকেটে ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ১০ ওভারে ১ উইকেটে ৬২ রান।

টস জিতলেন মাহমুদউল্লাহ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টি-টুয়েন্টিতে টস জিতল বাংলাদেশ। সফরকারী জিম্বাবুয়েকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান টাইগার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। শেষ ম্যাচে তিনটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামছে টাইগার শিবির। তামিম, শফিউল ও বিপ্লবের পরিবর্তে নাঈম শেখ, আল-আমিন ও হাসান মাহমুদ আছেন একাদশে। আর জিম্বাবুয়ে এনেছে একটি পরিবর্তন। তিরিপানোর জায়গায় খেলছেন টিশুমা।

এ ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে হারাতে পারলে প্রথম কোনো দলের বিপক্ষে একটি পূর্ণাঙ্গ সিরিজের সব ম্যাচে জিতবে টাইগার শিবির। তামিমসহ তিনটি পরিবর্তন এনেছে টাইগাররা। সিরিজের প্রথম টি-টুয়েন্টিতে প্রথমে ব্যাট করে ২০০ রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ। পরে জিম্বাবুয়েকে ১৫২ রানে অলআউট করে ৪৮ রানে জয় তুলে নেয়। তাই ওয়ানডের পর টি-টুয়েন্টিতেও উইলিয়ামসদের হোয়াইটওয়াশ করার সুযোগ স্বাগতিকদের সামনে। এ দিকে, জিম্বাবুয়ের চাওয়া অন্তত একটা জয় নিয়ে দেশে ফিরে যাওয়া।

বাংলাদেশের একাদশ : নাঈম শেখ, লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহীম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মেহেদী হাসান, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, আল-আমিন হোসেন, হাসান মাহমুদ ও মুস্তাফিজুর রহমান।

জিম্বাবুয়ের একাদশ : তিনাশে কামুনহুকামুয়ে, ক্রেইগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেইলর, সিকান্দার রাজা, শন উইলিয়ামস (অধিনায়ক), উইসলে মাধেভের, রিচমন্ড মুতুম্বামি (উইকেটরক্ষক), চার্লটন টিশুমা, তিনোতেন্ডা মুতোম্বোদজি, ক্রিস্টোফার এমপফু ও কার্ল মুম্বা।

Loading...

Check Also

সাকিবের ফেসবুক পোস্ট নিয়ে কৌতূহল

ক্রীড়া ডেস্ক নিজের ফেসবুক পেজে মঙ্গলবার (০৭ এপ্রিল) দুপুরে একটা ছবি পোস্ট করেছেন সাকিব আল ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *