Home / অর্থনীতি / খাতুনগঞ্জে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

খাতুনগঞ্জে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক
চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। চীন, মিসর ও তুরস্ক থেকে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। তবে দেশি ও মিয়ানমার থেকে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম কেজিতে ২০ থেকে ২৫ টাকা বেড়েছে।

সরজমিনে বাজার ঘুরে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) খাতুনগঞ্জে মিয়ানমারের পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৮৫ থেকে ৯৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। যা দুই দিন আগেও কেজি প্রতি ৭০ থেকে ৭৫ টাকা দামে বিক্রি হয়েছে।

পাইকার ও আড়তদাররা জানান, চট্টগ্রাম বন্দরে পেঁয়াজের আমদানি বেড়েছে। তাই বাড়ছে সরবরাহ। এ কারণে চীন, মিসর ও তুরস্ক থেকে আসা পেঁয়াজের দাম কমছে।

জানা গেছে, পেঁয়াজ আমদানির জন্য গত ১২ অক্টোবর থেকে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্ভিদ সংঘনিরোধ কেন্দ্রের অনুমতি (আইপি) নেওয়া হয়েছে ৯৭ হাজার ৮৮৫ টনের। তবে এর মধ্যে মিশর থেকে ৬২ হাজার ৩৭৪ টন, চীন থেকে ১৩ হাজার ৮৩ টন, তুরস্ক থেকে ১৩ হাজার ৬৮ টন, পাকিস্তান থেকে ৫ হাজার ৮৮০ টন, শ্রীলঙ্কা থেকে ১ হাজার ৬০০ টন, বেলজিয়াম থেকে ১ হাজার টন, নেদারল্যান্ডস থেকে ৬৮০ টন, উজবেকিস্তান থেকে ২০০ টন পেঁয়াজ আনা হবে।

ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ খালাস হয়েছে ১০ হাজার ৯৬৭ টন। এর মধ্যে মিশর থেকে এসেছে ৫ হাজার ৩০৬ টন, চীন থেকে ২ হাজার ৭৭২ টন, মিয়ানমার থেকে ১ হাজার ২২৮ টন, তুরস্ক থেকে ১ হাজার ৬৬ টন, ইউএই থেকে ১৬৮ টন, পাকিস্তান থেকে ৪২৭ টন পেঁয়াজ।

উদ্ভিদ সংঘনিরোধ কেন্দ্রের চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর শাখার উপপরিচালক ড. মো. আসাদুজ্জামান বুলবুল জানান, বন্দর দিয়ে প্রতিদিনই পেঁয়াজের কনটেইনার আসছে। পাইপ লাইনেও প্রচুর পেঁয়াজ রয়েছে। আশা করছি, কিছু দিনের মধ্যেই পেঁয়াজের বাজার স্থিতিশীল হয়ে যাবে।

Loading...

Check Also

দুই ব্যাংকের মেলেনি লাইসেন্স

নিজস্ব প্রতিবেদক শর্ত পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় সম্মতিপত্র (এলওআই বা লেটার অব ইনটেন্ট) পাওয়ার পরও কেন্দ্রীয় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *