Home / জেলার খবর / সারাদেশে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালন

সারাদেশে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালন

ডেস্ক রিপোর্ট
নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) দীর্ঘ ২৬ বছর ধরে সড়ককে নিরাপদ করার লক্ষ্যে আন্দোলন করে আসছে। সড়ককে নিরাপদ করার আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় প্রতি বছর ২২ অক্টোবর জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালন হয়। গতকাল মঙ্গলবার সারাদেশে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালন করা হয়েছে। ঢাকা প্রতিদিন- এর নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ
সাভার প্রতিনিধি জানান,
জীবনের আগে জীবিকা নয়, সড়ক দুর্ঘটনা আর নয় এই সেস্নাগানকে ধারণ করে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে সাভারে র‌্যাাল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টায় নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের বাইপাইল এলাকা থেকে একটি র‌্যালি শুরু হয়ে একই স্থানে এসে শেষ হয়। এসময় র‌্যালি থেকে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে গণসচেতনতা মূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়। পরে বাইপাইল এলাকায় এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অংশ নিয়ে বক্তারা সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সবাইকে ট্রাফিক আইন মেনে চলার পাশাপাশি সচেতন থাকার আহ্বান জানান।
জাতীয় নিরাপদ সড়কের আশুলিয়া কমিটির সদস্য সচিব মো. মোবারক হোসেন শাকিলের নেতৃত্বে র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন আশুলিয়া থানার ওসি শেখ রিজাউল হক দীপুসহ আরও অনেকে। প্রসঙ্গত, ২৬ বছর আগে বান্দরবানে যাবার পথে মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় ইলিয়াস কাঞ্চনের স্ত্রী জাহানারা কাঞ্চন নিহত হন। রেখে যান অবুঝ দুটি শিশু সন্তান জয় ও ইমাকে। ইলিয়াস কাঞ্চন সে সময় সিনেমার শুটিংয়ে বান্দরবান অবস্থান করছিলেন। স্ত্রীর অকাল মৃত্যুতে দুটি অবুঝ সন্তানকে বুকে নিয়ে শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করে ইলিয়াস কাঞ্চন নেমে আসেন পথে। পথ যেন হয় শান্তির, মৃত্যুর নয়- এই সেস্নাগান নিয়ে গড়ে তোলেন সামাজিক আন্দোলন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)।
ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান জানান, ময়মনসিংহে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে সড়ক নিরাপত্তা, জনসচেতনতা বৃদ্ধি মূলক রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল সকাল ১০টায় ময়মনসিংহ তারেক স্মৃতি অডিটরিয়ামে এর আয়োজন করা হয়।
জেলা প্রশাসন ও বিআরটিএর ময়মনসিংহ সার্কেলের যৌথ আয়োজনে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক মো. মিজানুর রহমান। প্রধান অতিথি ছিলেন ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার খোন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান এনডিসি। বিশেষ অতিথি ছিলেন ময়মনসিংহ রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি ড. আক্কাছ উদ্দিন ভূঁইয়া, আনন্দমোহন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নারায়ণ চন্দ্র ভৌমিক, সড়ক ও জনপথ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী সাইফুল আলম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ফরিদা ইয়াসমিন, জেলা মটর মালিক সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব মো. মমতাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, নিরাপদ সড়ক চাই এর ময়মনসিংহ শাখার সভাপতি আব্দুল কাদের চৌধুরী, মটর কর্মচারী ইউনিয়নের আহ্বায়ক হাজী মো. আব্দুল মান্নান।
শুরুতেই পবিত্র কুরআন থেকে তেলওয়াত করেন হাফেজ মো. তোফাজ্জল হোসেন ও গীতা পাঠ করেন প্রীতিষ ভট্টাচার্য। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিআরটিএ এর ময়মনসিংহ সার্কেলের সহকারী পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মো. আব্দুল খালেক। বক্তারা সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাস কল্পে গণসচেতনতা বৃদ্ধিমূলক প্রচারণার আহ্বান জানিয়ে সবাইকে সচেতন হওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।
প্রধান অতিথি বলেন, আমি সাবধান ও সহিষ্ণু না হলে আমার নিরাপদ সড়ক সম্ভব নয়। সবাইকে সাবধান হতে হবে। সহকারী পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মো. আব্দুল খালেক তার স্বাগত বক্তব্যে বাংলাদেশের নিরাপদ সড়কের নানা তথ্যউপাত্ত তুলে ধরে বলেন, নিরাপদ সড়ক মানে নিরাপদ জীবন। আমার জীবন ও শরীরের নিরাপত্তা নির্ভর করে আমার উপর। চালককে ধৈর্য্য ও সাবধানতার সঙ্গে গাড়ী চালাতে হবে, প্রত্যেকেই রাস্তা পারাপারে সাবধান থাকতে হবে। তাহলে নিরাপদ জীবন সম্ভব। আলোচনা শেষে রচনা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী বিজয়ী ৩ ছাত্রের হাতে পুরস্কার তুলে দেন সম্মানিত অতিথিবৃন্দ। প্রথম পুরস্কার লাভ করেন জেলা স্কুলের ছাত্র উৎস সরকার, দ্বিতীয় পুরস্কার পান নাদিম তাহমিদ ও তৃতীয় পুরস্কার পান মাজহারুল ইসলাম ফাহিম। এর আগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিতে বিভাগীয় কমিশনার সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রশাসনিক কর্মকর্তা সুধীজন ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করেন। র‌্যালিটি টাউন হল চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি জানান, জীবনের আগে জীবিকা নয়, সড়ক দুর্ঘটনা আর নয় এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন ও বিআরটিএ’র উদ্যোগে নিরাপদ সড়ক দিবস পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে একটি র‌্যালি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় শহীদ মিনারে এসে সমবেত হয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভার আয়োজন করে।
নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র জামিলুর রহমান মিরন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলাম, টাঙ্গাইল বাস-কোচ-মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বড় মনি, বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক মো. আবু নাঈম, জেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি এম এ রৌফ, টাঙ্গাইল পৌর কাউন্সিলর আমানুর রহমান আমিন প্রমুখ।
এসময় বক্তারা নিরাপদ সড়ক বিষয়ে বিভিন্ন সচেতনতামূলক বক্তব্য রাখেন। তারা বলেন, একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না। তাই এ দুর্ঘটনা এড়াতে বর্তমান সরকার নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। অতীতের তুলনায় বর্তমানে সড়ক দুর্ঘটনা কমে এসেছে।
বাগেরহাট প্রতিনিধি জানান, জীবনের আগে জীবিকা নয়, সড়ক দুর্ঘটনা আর নয় এই সেস্নাগানে বাগেরহাটে নানা আয়োজনে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালন করা হয়েছে। গতকাল সকালে শহরের খানজাহান আলী ডিগ্রী কলেজের সামনে থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি বাগেরহাট-খুলনা মহাসড়ক ঘুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। জেলা প্রশাসন, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলন, বিআরটিএ, এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের যৌথ আয়োজনে দিবসটি পালন করা হয়। র‌্যালিতে বাগেরহাট প্রশাসনের কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

পরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক দেব প্রসাদ পালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, বিআরটিএ সহকারি পরিচালক তানভীর আহমেদ, সদর উপজেলা পরিষদের নারী ভাইস চেয়ারম্যান জেলা নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের নেত্রী রিজিয়া পারভীন, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের জেলা শাখার সভাপতি আলী আকবর টুটুল।
বক্তারা বলেন, বেপরোয়াভাবে গাড়ী চালানোর কারণে দেশের সড়ক মহাসড়কগুলোতে প্রতিদিনই দুর্ঘটনা ঘটছে। এই সড়ক দুর্ঘটনায় আমাদেরই আপনজনকে হারাতে হচ্ছে। একটি সড়ক দুর্ঘটনা একটি পরিবারের সারা জীবনের কান্না হয়ে দাঁড়াচ্ছে। তাই সড়ক দুর্ঘটনার রোধে অদক্ষ, অপ্রাপ্ত বয়স্ক চালক, সহযোগীদের দিয়ে গাড়ি চালানো বন্ধ করতে সরকারকে আরও কঠোর হওয়ার আহ্বান জানানো হয়।
মৌলভীবাজার প্রতিনিধি জানান, মৌলভীবাজারে বিশাল র‌্যালি ও আলোচনা সভার মধ্যদিয়ে পালন করা হয়েছে নিরাপদ সড়ক দিবস। মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসন ও সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ), মৌলভীবাজার এর যৌথ আয়োজনে দিবসটি পালন করে। জীবনের আগে জীবীকা নয়, সড়ক দুর্ঘটনা আর নয় এই সেস্নাগানকে সামনে রেখে টানা তৃতীয় বারের মতো এ দিবসটি পালন করা হয়। গতকাল সকালে মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে র‌্যালি নিয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পরিদর্শন করে পুনরায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
আলোচনা সভায় মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মৌলভীবাজার-৩ আসেন সাংসদ নেছার আহমদ। জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা জসীম উদ্দিন মাসুদের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আনোয়ারুল হক, মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র মো. ফজলুর রহমান, সিভিল সার্জন শাহজাহান কবীর চৌধুরী।
অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিআরটিএ মৌলভীবাজার এর সহকারী পরিচালক মোঃ হাবিবুর রহমান। এছাড়া বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আজমল হোসেন চৌধুরী, শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।
আলোচনা সভায় সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) মৌলভীবাজার এর পক্ষ থেকে সড়ক দুর্ঘটনার কারণ ও এর প্রতিকারে বিভিন্ন তথ্য সংবলিত একটি বই সকলে হাতে তুলে দেয়া হয়। এছাড়াও ২ শত বই জেলা পুলিশের হাতে তুলে দেন প্রধান অতিথি সহ বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ।
আলোচনায় সড়ক দুর্ঘটনা বৃদ্ধির কারণ ও চালকদের সচেতন করার ব্যাপারে জোর দেওয়া হয়। সাংসদ নেছার আহমদ বলেন কঠোরভাবে আইন প্রয়োগ করতে হবে। বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ শতভাগ নিয়মের মধ্যে থাকতে হবে। কোনো অবস্থাতেই দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেওয়া যাবে না। প্রধানমন্ত্রীর মিশন ও ভিশন বাস্তবায়নে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা থাকতে হবে।
তিনি আরো বলেন সড়কে মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সক্রিয় ভুমিকা থাকতে হবে। কোথাও যেনো স্বজনপ্রীতি না হয় সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে।
উল্লেখ্য, গত ২০১৮ সালে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের হিসেবে ২ হাজার ৬ শত ৯ জন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন এবং চলতি বছরের জুলাই পর্যন্ত ২ হাজার ১ শত ৭৪ টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন ২ হাজার ১ শত ৬ জন।
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, জীবনে আগে জীবিকা নয়, সড়ক দুর্ঘটনা আর নয় এই প্রতিপাদ্য বিষয় সামনে রেখে গোপালগঞ্জে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালন করা হয়েছে।
বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) গোপালগঞ্জ সার্কেল কর্তৃক আয়োজিত এবং গোপালগঞ্জ জেলা প্রশসনের সার্বিক সহযোগিতায় জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রায় গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, সড়ক ও জনপথ বিভাগের পদস্থ কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা, শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা এবং জেলার নানা পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রা শেষে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ স্বচ্ছতায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইলিয়াছুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন গোপালগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আবদুল্লাহ আল বাকী। বিশেষ অতিথি ছিলেন গোপালগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী খ: মো. শরীফুল আলম,উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. শাকিরুল ইসলাম, গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, গোপালগঞ্জ বিআরটিএর সহকারী পরিচালক সুবীর কুমার সাহা, পুলিশ পরিদর্শক মো. উজ্জ্বল শেখ, বিআরটিসির টেকনিক্যাল ম্যানেজার নীহার রঞ্জন মজুমদার। আলোচনা সভায় বক্তারা উপযুক্ত প্রশিক্ষনের মাধ্যমে দক্ষ চালক গড়ে তোলা এবং ট্রাফিক আইন যথাযথ বাস্তবায়নের মাধ্যমে সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনা এবং নিরাপদ সড়ক ব্যবস্থা নিশ্চিতের তাগিদ দেন।
কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, জীবনের আগে জীবিকা নয়, সড়ক দূর্ঘটনা আর নয় সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাস ও জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবসের র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল সকালে কিশোরগঞ্জ কর্মচারী কল্যাণ সমিতির ক্লাব ভবনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রাশেদুল আলম। আরও বক্তব্য রাখেন নারী নেত্রী বিলকিস বেগম, জেলা মটরযান মালিক সমিতির আহ্বায়ক লেলিন রায়হান শুভ্র শাহীন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মোটর যান পরিদর্শক মো. ফয়েজ আহাম্মদ।
আলোচনা সভায় কিশোরগঞ্জ জেলার সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি, শ্রমিক ইউনিয়ন, স্থানীয় সাংবাদিক ও সংবাদ সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। সভার পূর্বে কিশোরগঞ্জ শহরে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করে। সুদৃশ্য প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন সম্বলিত র‌্যালিটি সেস্নাগাননে মুখরিত হয়ে কিশোরগঞ্জ পুরাতন স্টেডিয়াম থেকে বের হয়ে কালেক্টরেট ভবনে গিয়ে শেষ হয়।
ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি জানান, দোষারপ নয়,জীবনের আগে জীবিকা নয়,সড়ক দূর্ঘটনা আর নয় এই সেস্নাগানকে সামনে রেখে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে নিরাপদ সড়ক চাই ফুলবাড়ী শাখার, ফুলবাড়ী থানার উদ্যোগে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালন করা হয়েছে।
গতকাল বেলা ১১টায় ফুলবাড়ী উপজেলা চত্তর থেকে এক র‌্যালি বের হয়ে পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা চত্তরে এসে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে উপজেলা পরিষদ চত্ত¡রে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভা নিরাপদ সড়ক চাই ফুলবাড়ী শাখার অর্থ সম্পাদক আল-আমিন এর সঞ্চালনায় ফুলবাড়ী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. কানিজ আফরোজের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন ফুলবাড়ী উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জু রায় চৌধুরী।
আরও বক্তব্য দেন ফুলবাড়ী থানার ওসি মো.ফকরুল ইসলাম, সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আতিকুর রহমান, নিরাপদ সড়ক চাই উপজেলা শাখার সভাপতি মো. খাজানুর হায়দার লিমন, সাধারণ সম্পাদক মো. হাসান ফরিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এস.এম রাসেল পারভেজ প্রমুখ।

Loading...

Check Also

আমতলীতে ১৪ মামলার আসামি গ্রেফতার

বরগুনা প্রতিনিধি বরগুনার আমতলী উপজেলা থেকে ১৪টি মাদক মামলার আসামি মো. কাওছার নামের একজনকে অস্ত্র-গুলি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *