Home / তথ্য প্রযুক্তি / গুগলের সকল পণ্যে রিসাইকেল উপাদান

গুগলের সকল পণ্যে রিসাইকেল উপাদান

তথ্য প্রযুক্তি ডেস্ক, ঢাকা প্রতিদিন.কম : গুগল অঙ্গীকার করেছে ২০২২ সালের ভেতর তাদের সকল হার্ডওয়ার পণ্য উৎপাদনে রিসাইকেল বা পুনর্ব্যবহারযোগ্য উপাদান ব্যবহার করবে। এলক্ষ্যে তাদের একটি দল ২ বছর ধরে কাজ করছে।

অর্থাৎ ২০২২ সালের পিক্সেল ফোন কিংবা ক্রোমবুকস বা গুগল স্মার্ট হোম ডিভাইসে ব্যবহার হবে পুরোনো প্লাস্টিকের বোতল কিংবা পুরোনো ধাতু। পরিবেশ সুরক্ষা এবং ইলেকট্রিক বর্জ্য কমাতেই গুগলের এই উদ্যোগ।

গত সোমবার গুগলের হেড অব সাসটেইনেবিলিটি আনা মেগান তার ব্লগে জানান, ‘গুগলের লক্ষ্য হচ্ছে- যেখানেই সম্ভব পুনর্ব্যবহারযোগ্য সামগ্রীটি সর্বাধিক ব্যবহার করুন।’

অবশ্য এবছরের শেষ নাগাদই গুগল তাদের একটি পণ্যে রিসাইকেল উপাদান ব্যবহার করতে যাচ্ছে। আর ২০২২ সালে গুগলের সকল পণ্যেই কোনো না কোনো ভাবে থাকবে রিসাইকেল উপাদান। এতে করে বিশ্বব্যাপী ইলেকট্রিক বর্জ্য যেমন কমবে তেমনি বাড়বে অব্যবহৃত পণ্যের ব্যবহার। এতে করে এসব পণ্য ঘিরেও একটি বাজার সৃষ্টি হবে। ফলে বাড়বে আয়, বাড়বে কর্মসংস্থাম।

তবে এই উদ্যোগ শুধু গুগল একা নিলেই হবেনা। বিশ্বের বর বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে আসতে হবে। তাহলেই কমে যাবে ইলেকট্রিক বর্জ্য। বিশেষ করে কম্পিউটার বর্জ্য ইলেকট্রিক বর্জ্যের বড় একটি অংশ। তার পরেই আছে মোবাইলের অবস্থান। তবে ধীরে ধীরে মোবাইলের বর্জ্যও আকারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। সে হিসেবে গুগলের এই উদ্যোগ সত্যিই সাধুবাদ জানানোর মতো।

এর আগে ২০১৭ সালে অ্যাপলও ঘোষণা দেয় তারা তাদের ম্যাকবুকের কেসিং ১০০% রিসাইকেল অ্যালুমিনিয়াম দিয়ে তৈরি করবে। তাছাড়া আইফোনের লজিক বোর্ড তৈরিতেও ব্যবহার করবে রিসাইকেল উপাদান। এভাবে সকল প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান এগিয়ে আসলে ইলেকট্রিক বর্জ্য অনেক কমিয়ে আনা সম্ভব।

ঢাকা প্রতিদিন.কম/এআর

Loading...

Check Also

ভারতীয় জলসীমায় চীনের আগ্রাসন, উত্তপ্ত লোকসভা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা প্রতিদিন.কম : ভারতের জলসীমায় চীনের ‘আগ্রাসন’ নিয়ে সংসদ উত্তপ্ত হয়েছে। এ নিয়ে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *