Breaking News
Home / জেলার খবর / সংস্কারহীন হাতিরপুল

সংস্কারহীন হাতিরপুল

রাণীনগর (নওগাঁ) সংবাদদাতা
ঐতিহ্যবাহী ব্রিটিশ আমলে নির্মিত হাতিরপুল নামক সেতুটি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরদারির অভাবে দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার কাজ না করায় স্মৃতির পাতা থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে। বছর দুই আগে স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদফতর থেকে সড়ক বিভাগে হস্তান্তর করা হলেও যথাযথা সংস্কার না করায় সেতুটি বর্তমানে চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। সেতুর উপর দিয়ে প্রতিদিন মালবাহি ভারি ট্রাক, ট্র্যাক্টর, সিএনজি, অটোরিকশা, ভ্যানসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন উপজেলা সদর হয়ে জেলা সদরে যাতায়াত করার ফলে অনেক দিন যাবৎ পিলার ও গার্ডারের বিভিন্ন অংশের ইট খুলে পড়ছে। ইট-শুরকি দিয়ে তৈরি ব্রিটিশ আমলে নির্মিত সেতুটির ডেবে যাওয়া অংশে বৃষ্টির পানি জমে সেতুটি দিন দিন মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে। যে কোন সময় সেতুটি ভেঙে পড়ে প্রাণহানির মত ঘটনা ঘটতে পাড়ে বলে এলাকাবাসি আশঙ্কা করছে। অনতিবিলম্বে এই সেতুর উপর দিয়ে ভারি যানবাহন চলাচল বন্ধসহ সেতু সংলগ্ন নির্মাণাধীন নতুন সেতু অতি দ্রুত নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
জানা যায়, নওগাঁ জেলার রাণীনগর উপজেলা সদর থেকে দুই কিলোমিটার পূর্ব দিকে রাণীনগর-আবাদপুকুর সড়কে অবস্থিত ব্রিটিশ আমলে ইট-শুরকি দিয়ে নির্মিত হাতিরপুল নামক সেতুটির যুগ যুগ ধরে সংস্কার কাজ না করায় বর্তমানে সেতুটি ঐতিহ্য হারাতে বসেছে। রাণীনগর উপজেলার ঐতিহাসিক একমাত্র স্থান কাশিমপুর রাজবাড়ির রাজা তার স্ট্রেট দেখাশুনার জন্য উপজেলার পূর্বাঞ্চলে যাতায়াত করতো। রক্তদহ বিলের দক্ষিণ পার্শ্বে রতনডারী খালের উপর সেই সময় কোনো সেতু না থাকার কারণে ওই স্থানে একটি কাঠেরপুল নির্মাণ করা হয়। সেই সেতুটি নষ্ট হওয়ার কারণে জনস্বার্থে ব্রিটিশ সরকারের আমলে ইট-শুরকি দিয়ে হাতিরপুল সেতুটি মির্মাণ করা হয়।
কথিত আছে, সেতুটি তৈরির সময় শুরকি বিছানোর পর রাজবাড়ির হাতি দিয়ে খুচিয়ে খুচিয়ে ছাদের উপরের অংশ সমান করার কারণে এই সেতুটির নাম হাতিরপুল নামে এলাকায় পরিচিতি লাভ করে। প্রকল্প আসে প্রকল্প যায় কিন্তু রাণীনগরের ঐতিহ্যবাহী হাতিরপুল সরকারের পক্ষ থেকে রক্ষণাবেক্ষণ ও সংস্কার কাজ না করায় গত প্রায় দেড় বছর ধরে সেতুর পিলার ও গার্ডারের ইট খুলে খুলে পড়ে যাচ্ছে। সেতুর পাটাতনের একদিকে ডেবে যাওয়ায় চলাচলের অনুপযুগী হওয়ার পরও এই সেতু দিয়েই প্রতিদিন চলাচলা করছে ভারি যানবাহনসহ বিভিন্ন গাড়ি। উপজেলার লোহাচ‚ড়া গ্রামের আব্দুল রাজ্জাক জানান, আমার জানা মতে ১৯১৯ সালে জমিদারেরা তদের জমি দেখাশুনার জন্য রাণীনগরের পূর্ব এলাকার বিভিন্ন স্ট্রেটে যাতায়াত করতে গিয়ে রাজাপুর থেকে সিম্বা গ্রাম পর্যন্ত ভঙ্গুর যোগাযোগের কারণে তিন কাঠেরপুল তৈরি করে। পূর্ববর্তীতে দুই জায়গা মাটি দিয়ে ভরাট করার পর রতনডারি’র খালের উপরে বড় আকারের একটি সেতু নির্মাণ করা হয়। ব্রিটিশ আমলে ইট-শুরকি দিয়ে নান্দনিক নকশায় চারটি পিলার এর উপর এই সেতুটি নির্মাণ করা হয়। রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে বর্তমানে সেতুটি বয়সের ভারে নিজেই এখন ঐতিহ্যের যৌলোস নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে পারছে না।
নওগাঁর সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হামিদুল হক জানান, উপজেলা সদর থেকে আবাদপুকুর পর্যন্ত প্রায় চৌদ্দ কিলোমিটার সড়কের পুনরায় নির্মাণ কাজ চলছে। সড়কটি আঠারো ফুট প্রস্থ এবং এই সেতুর স্থানে নতুন একটি সেতুসহ আরো তিনটি সেতু ও পঁচিশটি পুল নির্মাণের কাজ চলছে। তবে এই সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় ভারী যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

Loading...

Check Also

বৃষ্টিতেও মুখরিত কক্সবাজার সৈকত

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা প্রতিদিন.কম : ঈদুল আযহার ছুটিতে দেশের প্রধান পর্যটন কেন্দ্র কক্সবাজারে ছুটেছেন ভ্রমণ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *