Home / সাক্ষাৎকার / এইচএসসিতে কৃতকার্যদের অভিনন্দন, অকৃতকার্যদের সান্ত্বনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

এইচএসসিতে কৃতকার্যদের অভিনন্দন, অকৃতকার্যদের সান্ত্বনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
উচ্চ মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় (এইচএসসি) কৃতকার্য শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অন্যদিকে প্রকাশিত ফলাফলে অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের সান্ত্বনা জানান তিনি। আজ বুধবার সকাল ১০টায় গণভবনে এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর হাতে এইচএসসি এবং সমমানের পরীক্ষার ফলাফল হস্তান্তরকালে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে এ কথা জানান শেখ হাসিনা।
শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি ও সব বোর্ডের চেয়ারম্যানেরা নিজ নিজ বোর্ডের ফলাফল প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন। এ সময় শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীও উপস্থিত ছিলেন।
প্রকাশিত ফলাফল অনুযায়ী, এ বছর সার্বিকভাবে পাস করেছে ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ শিক্ষার্থী। দশ শিক্ষা বোর্ডে এবার সব মিলিয়ে পরীক্ষার্থী ছিল ১৩ লাখ ৩৬ হাজার ৬২৯ জন। তাদের মধ্যে পাস করেছে ৯ লাখ ৮৮ হাজার ১৭২ জন। গত বছর এ পরীক্ষায় পাসের হার ছিল ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ। সেই হিসাবে এবার উচ্চ মাধ্যমিকে পাসের হার বেড়েছে ৭ দশমিক ২৯ শতাংশ। সারা দেশে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৭ হাজার ৫৮৬ জন। গত বছর জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২৯ হাজার ২৬২ জন শিক্ষার্থী। আর জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ১৮ হাজার ২৪ জন।
ফলাফল হস্তান্তর পর প্রধানমন্ত্রী পাস করা শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানান। আর যারা পাস করতে পারেনি তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, মন খারাপ করার কিছু নেই, আবার পরীক্ষা দেবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন তো আরেকটা সুবিধাও আমরা করে দিয়েছি নীতিমালায়। একটা বা দুটো বিষয়ে যদি ফেল করে সেগুলোই আবার দিতে হবে, পুনরায় সব পরীক্ষা আবার দিতে হবে না।
শেখ হাসিনা বলেন, আমারা এ সুযোগগুলো সৃষ্টি করে দিয়েছি যতে আমাদের ছেলেমেয়েরা পাস করে, তারা নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারে, স্বউদ্যোগে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারে, এবং বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করতে পারে।
প্রধানমন্ত্রী ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ পাসের হারকে ‘যথেষ্ট গ্রহণযোগ্য ও ভালো’ ফলাফল হিসেবে বর্ণনা করেন। তিনি বলেন, আমি মনে করি আমাদের শিক্ষার দিকে মনোযোগ দিলে ধীরে ধরে আরো ভালো রেজাল্ট করতে পারবে। সেটা আমার বিশ্বাস। কারণ আমি মনে করি ছেলেমেয়েরা ফেল করবে কেন? আমরা কতগুলো উদ্যোগও নিয়েছি যাতে আমাদের ছেলেমেয়েরা পড়ালেখায় মনোযোগী হয়।
পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট সবাইকে শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, এবার পরীক্ষা হয়েছে ‘সুন্দর’ পরিবেশে। এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস এবং নকল সর্বোতভাবে বন্ধ হয়েছে। পরীক্ষা নিয়ে কোনো বিভ্রান্তি প্রতারণা কিংবা গুজবের সৃষ্টি হয়নি।

Loading...

Check Also

আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় উদ্ভিদের সর্ববৃহৎ সংগ্রহশালা ও সেশনজট মুক্ত

কেএম শফিকুর রহমান, গোপালগঞ্জ থেকে : প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *