Home / প্রবাস / বিহারে এনসেফালাইটিসে মৃতের সংখ্যা ১০০ ও তাপপ্রবাহে একদিনে মৃতের সংখ্যা ৫০ ছাড়ালো

বিহারে এনসেফালাইটিসে মৃতের সংখ্যা ১০০ ও তাপপ্রবাহে একদিনে মৃতের সংখ্যা ৫০ ছাড়ালো

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-

ভারতের রাজ্য বিহার জুড়ে যেন মৃত‍্যু মিছিল নেমেছে। একদিকে এনসেফেলাইটিসে মৃত শিশুদের সংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পেয়ে ১০০ ছাড়ালো, অন‍্যদিকে তাপপ্রবাহের কারণের মৃতের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে আরও ৩০০ শিশু। সোমবার (১৭ জুন) রাজ্যের কর্তৃপক্ষের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম। সংবাদমাধ্যম জানায়, সবশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যের মুজাফফরপুর জেলায় আরও ২০ শিশুর মৃত্যু হওয়ায় বিগত ১৬ দিনে এ রোগে আক্রান্ত হয়ে মোট শিশু মৃত্যুর সংখ্যা ১০০তে দাঁড়িয়েছে। আর অসুস্থ হয়ে বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে আরও ৩০০ শিশু। কর্তৃপক্ষের দেওয়া হিসেব অনুযায়ী, মুজাফফরপুর জেলার শ্রী কৃষ্ণ মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে (এসকেএমসিএইচ) ৮৩ এবং কেজরিওয়াল হাসপাতালে ১৭ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, হাইপোগ্লাইসেমিয়ার (ব্লাড সুগার খুবই নিচে নেমে যাওয়া) কারণেই বেশিরভাগ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও তাপপ্রবাহের কারণে সবথেকে বেশি মৃত্যু হয়েছে তিন জেলায় – ঔরঙ্গবাদ, গয়া ও নওয়াদা। কেবলমাত্র ঔরঙ্গবাদেই মৃত্যু হয় ২৭ জনের। ঔরঙ্গবাদ জেলার রাজ‍্য পরিচালিত একটি হাসপাতালের ডাক্তার, ডঃ সুরেন্দ্র প্রসাদ সিং-এর বলেন, এই জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে এই মুহূর্তে একাধিক লোক চিকিৎসাধীন রয়েছেন। যারা মারা গিয়েছেন প্রত‍্যেকেই অতিরিক্ত জ্বরে ভুগছিলেন। গয়াতে ১২জন মারা গিয়েছেন তাপপ্রবাহের কারণে। তাপপ্রবাহের কারণে এতোজনের মৃত‍্যুকে ‘দুর্ভাগ‍্যজনক’ উল্লেখ করে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন সংবাদসংস্থা এএনআই-কে জানিয়েছেন, তাপপ্রবাহের কারণে মানুষ মারা যাচ্ছে, এটা খুবই দুর্ভাগ্যের বিষয়। আমি সবাইকে বলছি, তাপমাত্রা না কমা পর্যন্ত বাড়ির বাইরে যতটা সম্ভব কম বেরোতে হয় তার চেষ্টা করুন। অতিরিক্ত তাপমাত্রা ব্রেনের ক্ষতির পাশাপাশি নানারকম শারীরিক সমস্যা তৈরি করে। শুক্রবার (১৪ জুন) রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মঙ্গল পান্ডে এসকেএমসিএইচ হাসপাতাল পরিদর্শন করেছেন। সে সময় বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় এ হাসপাতালসহ রাজ্যের অন্য হাসপাতালগুলোতে অ্যাম্বুলেন্স ও বেড সংখ্যা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। তার সঙ্গে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও একমত পোষণ করেছেন। এছাড়া চলমান সঙ্কটময় পরিস্থিতি মোকাবিলায় চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নিতিশ কুমার।চিকিৎসকদের মতে, এনসেফালাইটিস একটি ভাইরাল ইনফেকশন। প্রাথমিকভাবে যার কারণে জ্বর বা মাথাব্যথার মতো হালকা সংক্রমণের লক্ষণ দেখা দেয়।

Loading...

Check Also

জাপানে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় হাগিবিস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা প্রতিদিন.কম : ঘন্টায় ২২৫ কিলোমিটার বাতাসের বেগ আর প্রবল বৃষ্টিপাত নিয়ে জাপান ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *