Home / বিনোদন / লাকী আখান্দের জন্মদিনে গুগলের ডুডল

লাকী আখান্দের জন্মদিনে গুগলের ডুডল

বিনোদন ডেস্ক

আজ (৭ জুন) নন্দিত সংগীতশিল্পী লাকী আখান্দের ৬৩তম জন্মদিন। তাঁর জন্মদিনের প্রথম প্রহরেই চমকে দিলো বিশ্বের প্রধান সার্চ ইঞ্জিন গুগল। উপহার হিসেবে গুগল তাদের লোগোতে স্থান দিয়েছে এই শিল্পীর প্রতিকৃতি।
গুগলের হোমপেজ (www.google.com) খুললেই দেখা যায় গিটার হাতে ক্যাপ মাথায় লাকী আখান্দকে। ছবিতে ক্লিক করলেই চলে আসে শিল্পীর বায়োগ্রাফি, তার সৃষ্টি গানগুলোর অডিও-ভিডিও এবং ছবিসহ প্রায় সবকিছু।
জানা গেছে, বিভিন্ন বিশেষ দিবস, বিখ্যাত কারও জন্মদিন কিংবা বিভিন্ন আয়োজনে নিজেদের সার্চ ইঞ্জিনের ডুডল (লোগো) নিয়মিতই পরিবর্তন করে থাকে গুগল। বিশেষ এ দিনগুলোতে গুগল নিজেদের নিয়মিত লোগোর জায়গায় যুক্ত করে ওই বিশেষ দিবস বা আয়োজনের প্রতীকী কোনও ছবি বা অ্যানিমেশন।
১৯৫৬ সালের এই দিনে (৭ জুন) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জন্মগ্রহণ করেন লাকী আখান্দ।লাকী আখান্দ আধুনিক বাংলা সংগীতের খ্যাতিমান শিল্পী, সুরকার ও সংগীত পরিচালক। ৫ বছর বয়সেই তিনি তার বাবার কাছ থেকে সংগীত বিষয়ে হাতেখড়ি নেন। তার শৈশব কেটেছে ঐতিহ্যবাহী পুরান ঢাকার পাতলা খান লেনে। মাত্র ১৪ বছর বয়সে এইচএমভি পাকিস্তানে সুরকার হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। সুরকার হিসেবে আরও কাজ করেছেন এইচএমভি ভারত এবং স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রেও।
স্বাধীনতার পর পর নতুন উদ্যমে বাংলা গান নিয়ে কাজ শুরু করেন। তার নিজের সুর করা গানের সংখ্যা দেড় হাজারেরও বেশি। শিল্পীর সহোদর ক্ষণজন্মা হ্যাপী আখান্দের সঙ্গে ছিল তার আত্মার সম্পর্ক। ভাইয়ের মৃত্যুর পর দীর্ঘকাল তিনি নিজেকে গুটিয়ে রেখেছিলেন। তারও আগে দু’জনের যৌথ প্রয়াসে সূচিত হয়েছিলো বাংলা গানের এক নতুন ধারা।
লাকী আখান্দলাকী আখান্দের উল্লেখযোগ্য গানের মধ্যে রয়েছে—‘এই নীল মণিহার’, ‘আমায় ডেকো না’, ‘কবিতা পড়ার প্রহর এসেছে’, ‘যেখানে সীমান্ত তোমার’, ‘মামনিয়া, ‘বিতৃষ্ণা জীবনে আমার’, ‘কি করে বললে তুমি’ ‘লিখতে পারি না কোনও গান, ‘ভালোবেসে চলে যেও না’ প্রভৃতি।
২০১৭ সালের ২১ এপ্রিল সন্ধ্যায় পুরান ঢাকার নিজ বাসায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন লাকী আখান্দ। গুণী সংগীতজ্ঞ মরণব্যাধি ক্যানসারে আক্রান্ত ছিলেন।

Loading...

Check Also

৩৫ নায়িকার সঙ্গে আফজাল হোসেন

বিনোদন প্রতিবেদক দীর্ঘ অভিনয় জীবন পার করেছেন অভিনেতা ও নির্মাতা আফজাল হোসেন। তাকে পর্দায় দেখা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *