Home / খেলাধুলা / পুরস্কার মঞ্চে যৌন হয়রানির শিকার হলেন ব্যালন ডি’অর জয়ী!

পুরস্কার মঞ্চে যৌন হয়রানির শিকার হলেন ব্যালন ডি’অর জয়ী!

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকা প্রতিদিন.কম ৫ ডিসেম্বর : সোমবার ছিল প্রমীলা ফুটবলের জন্য ঐতিহাসিক। এ দিন প্রথমবারের মতো ব্যালন ডি’অর পুরস্কার হাতে তুলে দেয়া হয় নারী ফুটবলার অ্যাডা হেগারবার্গের হাতে। কিন্তু ‘ফুটবলার-অ্যাডা’র চাইতে ‘নারী-অ্যাডা’র দিকেই যেন বেশি নজর ছিলো অনুষ্ঠানের উপস্থাপক মার্টিন সলভেইজের। পুরস্কার তুলে দেয়ার পর অ্যাডাকে উদ্দাম যৌন উত্তেজক নৃত্য করতে বলেন মার্টিন। অপ্রত্যাশিত এ ঘটনাকে যৌন হয়রানি হিসেবে দেখছেন বিশ্বের ফুটবলপ্রেমীরা। গার্ডিয়ান।

অনুষ্ঠানের ভিডিওতে দেখা যায়, প্যারিসের জমকালো পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে ব্যালন ডি’অরের অভিষেক ট্রফি নিতে মঞ্চে এসেছেন ফ্রান্সের ক্লাব লিঁও’র নারী ফুটবলার আডা হেগেরবার্গ। পুরস্কার নেয়ার এই ঐতিহাসিক মুহূর্তটি যখন এলো তখনই অ্যাডাকে অস্বস্তিতে ফেলে দিলেন অনুষ্ঠানের উপস্থাপক মার্টিন সলভেইজ।

ট্রফি হাতে তুলে নেয়ার পর হেগেরবার্গকে ‘টুয়ের্ক’ বা কোমর দুলিয়ে যৌন উত্তেজক নাচ দেখাতে বলেন উপস্থাপক।

তাৎক্ষণিক প্রস্তাবটি নাকচ করে দিয়ে মঞ্চ ছেড়ে যান অ্যাডা। এ ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ার ক্ষোভ জানিয়েছেন হাজারো মানুষ। অ্যান্ডি মুরে নামক এক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারী বলেন, ‘এটি খেলার জগতে চলে আসা পুরুষ আধিপত্যবাদের আরেকটি উদাহরণ।’

পরে অবশ্য মার্টিন ক্ষমা চেয়েছেন হেগেরবার্গের কাছে। টুইটারে মার্টিন বলেন, ‘আমি বিষয়টি অ্যাডার কাছে ব্যাখ্যা করেছি। অ্যাডা এটিকে কৌতুক হিসেবেই নিয়েছে।’ বিশ্বজুড়ে এ ঘটনার সমালোচনা হলেও এটি যৌন হেনস্থা হিসেবে দেখছেন না এই তারকা ফুটবলার।

অনুষ্ঠানের পরে তিনি বলেন, ‘আনন্দে আমিও তো নাচতে চেয়েছিলাম। ব্যাপারটাকে যৌন হয়রানি হিসেবে দেখছি না। ব্যালন ডি’অরের আনন্দটা উপভোগ করতে চাই।’

অ্যাডা হেগেরবার্গ গেল মৌসুমে ফ্রেঞ্চ লিগ ও চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন। চলতি বছর পুরুষ ফুটবলের ব্যালন ডি’অর জিতেছেন রিয়ালের লুকা মদ্রিচ। পুরুষ ফুটবলে পুরস্কারটি ১৯৫৬ সাল থেকে চালু আছে।

ঢাকা প্রতিদিন.কম/এআর

Loading...

Check Also

শাই হোপের এই ব্যাটেই স্বপ্ন ভঙ্গ টাইগারদের

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকা প্রতিদিন.কম ১২ ডিসেম্বর : এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জয়ের স্বপ্ন ছিল ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *