Home / অর্থ-বাণিজ্য / ঢাকায় হংসবলাকা

ঢাকায় হংসবলাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের দ্বিতীয় ড্রিমলাইনার ৭৮৭-৮ উড়োজাহাজ হংসবলাকা ঢাকায় পৌঁছেছে। গতকাল শনিবার দিবাগত রাত ১১টা ৪০ মিনিটের দিকে উড়োজাহাজটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। বিমানের জনসংযোগ শাখার মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শাহজালাল বিমানবন্দরে বাংলাদেশ বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ হংসবলাকা গ্রহণ করেন। এর আগে শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় হংসবলাকা ঢাকায় পৌঁছাবে বলে জানিয়েছিল বিমান বাংলাদেশ।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাছমিন আকতার জানান, সিয়াটল থেকে ছাড়তে বিলম্ব হওয়ায় নির্ধারিত সময় উড়োজাহাজটি ঢাকায় পৌঁছাতে পারেনি।

হংসবলাকার আগে ১৯ আগস্ট বিমানের প্রথম ড্রিমলাইনার আকাশবীণা ঢাকায় আনা হয়। গত ৫ সেপ্টেম্বর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ড্রিমলাইনার আকাশবীণার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিমান সংশ্লিষ্টরা জানান, দ্বিতীয় ড্রিমলাইনার হংসবলাকার আসন সংখ্যা ২৭১টি। এর মধ্যে বিজনেস ক্লাস ২৪টি এবং ২৪৭টি ইকোনমি ক্লাস। এটি দিয়ে ঢাকা-লন্ডন রুটে সপ্তাহে ছয়টি ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। এ ছাড়াও এটি উড়বে ঢাকা-দাম্মাম ও ঢাকা-ব্যাংকক রুটে। দাম্মাম রুটে সপ্তাহে চারটি এবং ব্যাংকক রুটে তিনটি ফ্লাইট পরিচালিত করা হবে।

২০০৮ সালে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স মার্কিন প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে একটি চুক্তি করেছিল। সেই চুক্তি অনুসারে বিমান তাদের কাছ থেকে ১০টি নতুন বিমান কিনবে। এর জন্য ২০১ কোটি ইউএস ডলার পরিশোধ করা হবে বলে চুক্তিতে উল্লেখ করা হয়েছিল। সেই চুক্তির অংশ হিসেবে ছয়টি বিমান যুক্ত হয়েছে, আর চারটি বাকি ছিল। সেই চারটির মধ্যে একটি হলো বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার।

এর মধ্যে প্রথমটি ড্রিমলাইনার আকাশবীণা গত ১৯ আগস্ট দেশের আকাশে নামে। এবার আসলো দ্বিতীয়টি। চারটি ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজের নাম প্রধানমন্ত্রী দিয়েছিলেন। আর সেগুলো হলো- আকাশবীণা, হংসবলাকা, গাঙচিল ও রাজহংস।

ঢাকা প্রতিদিন ডটকম/০২ ডিসেম্বর/এসকে

Loading...

Check Also

অস্থির হয়ে উঠছে তৈরি পোশাক শিল্প খাত

এম এ হালিম, সাভার থেকে : সরকারী গেজেট অনুযায়ী বেতন বৃদ্ধির দাবিতে সাভারে পাঁচটি কারখানায় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *