Breaking News
Home / খেলাধুলা / মোস্তাফিজ ম্যজিকে মুগ্ধ রিয়াদ

মোস্তাফিজ ম্যজিকে মুগ্ধ রিয়াদ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : শেষ ওভারে পরাজয় বরণ করাটা বাংলাদেশের ক্রিকেটের সঙ্গে প্রায় মিশে গেছে। অনেক ম্যাচ, এমনকি ফাইনাল ম্যাচেও শেষ ওভারের যন্ত্রণায় পুড়তে হয়েছে টাইগারদের। কিন্তু মরুর বুকে অন্য এক গল্পের জন্ম দিলেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান। তার বোলিং ম্যাজিকেই শেষ ওভারে কাঙ্খিত জয়ের দেখায় পায় বাংলাদেশ। মোস্তাফিজুর রহমানের বোলিংয়ে রীতিমত মুগ্ধ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ম্যাচ শেষেও তার মুখে ছিল মোস্তাফিজ এবং প্রেস কনফারেন্সেও তার মুখে ছিল ফিজ বন্দনা।

গতকাল রোববার শেষ ওভারে জয়ের জন্য আফগানিস্তানের প্রয়োজন আট রান। তাদের হাতে চার উইকেট। দুই দলের খেলোয়াড়দেরই তখন কপালে চিন্তার ভাজ। এমন চাপ নিয়ে বল হাতে আসলেন মোস্তাফিজ। ওভারের প্রথম বল থেকে দুই রান নেন রশীদ খান। দ্বিতীয় বলে মোস্তাফিজুর রহমানের হাতে ধরা পড়েন রশীদ খান। তৃতীয় বলে বাই সূত্রে এক রান নেন সামিউল্লাহ শেনওয়ারি। চতুর্থ বলটি ডট হয়। পঞ্চম বল থেকে বাই সূত্রে এক রান নেন গুলবদিন নাইব। শেষ বলটি ডট হয়। আর তাতেই এক স্বপ্নময় জয় পায় বাংলাদেশে।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে মোস্তাফিজের ওই ম্যাজিক ওভারের প্রশংসা করে জয়ের আরেক নায়ক মাহমুদউল্লাহ বলেন, মোস্তাফিজের শেষ ওভারের বোলিংকেই টার্নিং পয়েন্ট বলবো। আমাদের জুটি হয়ত গুরুত্বপূর্ণ ছিলো, কিন্তু ৬ বলে ৮ রান আটকানো সহজ নয়। মোস্তাফিজ যেভাবে করেছে, সেটা ছিলো অসাধারণ।

পাঁচ ওভার বোলিংয়ের পর কাল খুব ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলেন মোস্তাফিজ। ডিহাইড্রেশনে ক্র্যাম্প করতে শুরু করেছে পায়ের পেশি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তিনি জিতিয়েছেন গোটা দেশকে। তাইতো জয়ের জন্য মোস্তাফিজকে আলাদা কৃতিত্ব দিচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ। তিনি বলেন, আফগানরাও খুব ভালো খেলছিল, ভালো জুটি গড়েছিল। স্নায়ুকেও বশে রেখেছিল। তবে শেষ পর্যন্ত আমরাই জিতেছি। মোস্তাফিজ দারুণ বোলিং করেছে। সব বোলারই ভালো করেছে, ম্যাশ, সাকিব, মিরাজ সবাই। কিন্তু মোস্তাফিজকেই আলাদা কৃতিত্ব দিতে হবে। ক্র্যাম্প নিয়েও সে দারুণ বোলিং করেছে।

ঢাকা প্রতিদিন ডটকম/২৪ সেপ্টেম্বর/এসকে

Loading...

Check Also

ধোনির সঙ্গে তুলনা করা বাড়াবাড়ি: আকবর

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকা প্রতিদিন.কম : ক্রিকেট বিশ্বে ঠাণ্ডা মাথার ব্যাটসম্যান হিসেবে সুখ্যাতি রয়েছে ভারতের কিংবদন্তি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *