Home / বিনোদন / ফ্যাশন হাউজ খুলছেন মাহি

ফ্যাশন হাউজ খুলছেন মাহি

বিনোদন ডেস্ক : অভিনয় দিয়ে অনেক আগেই নিজের জাত চিনিয়েছেন হালের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও দামি নায়িকা মাহিয়া মাহি। এবার নতুন পরিচয়ে নিজেকে চেনানোর মিশনে নামছেন ‘ঢাকা অ্যাটাক’ খ্যাত অভিনেত্রী। ‘ভারা’ নামের একটি ফ্যাশন ব্র্যান্ড চালু করতে যাচ্ছেন তিনি। সম্প্রতি প্রথমসারির একটি গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাতকারে সে কথা নিজেই জানিয়েছেন মাহি। মাহি বলেন, ঈদের ছুটি শেষ হলেও এখনই শুটিং নিয়ে ব্যস্ত হতে চান না তিনি। নতুন ফ্যাশন ব্র্যান্ডটির পেছনে আপাতত কিছুদিন সময় দেবেন। নায়িকা বলেন, এই ফ্যাশন হাউজে নারী-পুরুষ ও শিশুদের জন্য পোশাক থাকবে। তৈরি করবেন স্থানীয় নারী কর্মীরা। অনেক আগে থেকেই এমন একটা কিছু করার ইচ্ছা ছিল। যেখানে নারীরা নিজেদের স্বাবলম্বী করতে পারবেন।

তিনি আরো বলেন, ‘অনেকে বলছেন, আমি নাকি পারব না। কারণ, নতুন কিছু দাঁড় করাতে গেলে যে সময় দেয়া লাগে, সেই সময়টা আমি দিতে পারব না। তবে আমি নিজেই নিজেকে সাহস দিয়ে ঝুঁকিটা নিয়ে ফেললাম। সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী ২৭ অক্টোবর আমার জন্মদিনে ফ্যাশন ব্র্যান্ডটি উদ্বোধন করার ইচ্ছা আছে।

গত জুন মাসে একটি সেলাই মেশিন নিয়ে কাজ শুরু করেছিলেন মাহি। এখন ১৫টি সেলাই মেশিন কিনেছেন তিনি। ১৫ জন নারী কর্মী সেখানে কাজ করবেন। তাদের দিয়েই আনুষ্ঠানিকভাবে ‘ভারা’র যাত্রা শুরু হবে। মাহি তার ফ্যাশন হাউজটির শোরুম দিয়েছেন রাজধানীর উত্তরায়। এই ফ্যাশন হাউজের জন্য আপাতত কোনো শুটিংয়ের কাজ হাতে রাখেননি নায়িকা। গেল কোরবানির ঈদে একসঙ্গে দুটি ছবি মুক্তি পায় তার। একটি ‘জান্নাত’, অন্যটি ‘মনে রেখো’। ‘জান্নাত’-এ মাহি কাজ করেছেন সায়মন সাদিকের বিপরীতে। আর ‘মনে রেখো’ ছবিতে তার নায়ক কলকাতার বনি সেনগুপ্ত। বনির বিপরীতে মাহির প্রথম কাজ এটি।

এই দুই ছবি নিয়ে নায়িকা বলেন, ‘জান্নাত’ ছবিটি নিয়ে সবাই ভালোলাগার কথা জানিয়েছেন। ‘মনে রেখো’ দেখে ৭০ ভাগ দর্শক ভালো বলেছেন। বাকিরা বলেছেন আরো ভালো হতে পারত। ঈদের পরে সনি সিনেমা হলে গিয়ে ‘মনে রেখো’ দেখেছি। ভালো লেগেছে। বিনোদনে ভরপুর একটি ছবি। প্রেম, অ্যাকশন, কমেডি সব আছে। একদম ‘মসলা’ ছবি যাকে বলে।

ঢাকা প্রতিদিন ডটকম/০৯ সেপ্টেম্বর/এসকে

Loading...

Check Also

ভালোবাসা দিবসে হাবিবের সুরে পড়শী

বিনোদন প্রতিবেদক : নতুন বছরে বেশ বড় আয়োজন করছেন কণ্ঠশিল্পী পড়শী। আর তাতে প্রথমেই যোগ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *