Home / জেলার খবর / বড়াইগ্রামে শোক দিবসের অনুষ্ঠানে হামলার প্রতিবাদে নিন্দা

বড়াইগ্রামে শোক দিবসের অনুষ্ঠানে হামলার প্রতিবাদে নিন্দা

নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের বড়াইগ্রামে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত শোক সভায় অংশগ্রহণ করতে আসা নেতাকর্মীদের ওপর দলীয় প্রতিপক্ষের বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নাটোরের স্থানীয় এক হোটেলে উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ নিন্দা ও ক্ষোভ জানানো হয়। এ সময় নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতারের দাবি করেছেন। উল্লেখ্য, গত বুধবার জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বড়াইগ্রাম পৌর চত্বরে আয়োজিত জনসভায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য-জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারির সমর্থক গোষ্ঠির উপর সশস্ত্র হামলা চালায় স্থানীয় এমপি আব্দুল কুদ্দুস সমর্থিত নেতা-কর্মীরা। এসময় মুক্তিযোদ্ধা সহ কমপক্ষে ১৬ নেতাকর্মী আহত হয়। ভাঙচুর করা হয় ১০টি মোটরসাইকেল ও দুই সেট মাইক। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে সশস্ত্র হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা যুব লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও বনপাড়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র মোহিত কুমার সরকার লিখিত বক্তব্যে জানান, বিকেলে পৌর চত্বরে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারীর সমর্থিত নেতা-কর্মীরা শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে। ওই সভায় যোগদানের উদ্দেশ্যে জোনাইল ও চান্দাই ইউনিয়ন থেকে নেতা-কর্মীরা মোটরসাইকেল শোভাযাত্রাসহ আসার পথে সাইফুল ইসলাম মেম্বারের নেতৃত্বে ১৫-২০ জন যুবক চাইনিজ কুড়াল, লোহার রড, হাতুড়ি ও লাঠিসোটা নিয়ে তাদের উপর হামলা করে। আতর্কিত হামলায় আহত হন চান্দাই ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান জিন্নাহ, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ইন্তাজ, জোনাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আযাদ, সহ-সভাপতি মাহতাব উদ্দিন মাষ্টার, আ.লীগ কর্মী নজু খাঁ, ইসরাইল হোসেন, মেহেদী হাসান, মমিন আলী, ফরহাদ হোসেন, যুবলীগ নেতা মিন্টুসহ কমপক্ষে ১৬ জন। আহতদের মধ্যে সাত জনকে বড়াইগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয় ও বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- হামলায় আহত মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান জিন্নাহ, আমিনুল ইসলাম ইন্তাজ ও অন্যদের মধ্যে জেলা পরিষদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আবু বক্কর সিদ্দিক ও আবুল কালাম জোয়ার্দ্দার, সাবেক বনপাড়া পৌর কাউন্সিলর প্রবীণ আ.লীগ নেতা সোবাহান প্রামাণিক, বড়াইগ্রাম পৌর যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বাবর, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম প্রমুখ।

ঢাকা প্রতিদিন ডটকম/১৬ আগস্ট/এসকে

Loading...

Check Also

রাঙ্গামাটিতে ঘুম থেকে তুলে দু’জনকে গুলি করে হত্যা

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি রাঙ্গামাটির নানিয়ারচর উপজেলার রামসুপারি পাড়া এলাকায় দুইজনকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহতরা রামসুপারি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *