Home / জাতীয় / অগ্রিম টিকিট পেতে রেলস্টেশনে যাত্রীদের ভিড়

অগ্রিম টিকিট পেতে রেলস্টেশনে যাত্রীদের ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঈদুল আজহাকে ঘিরে এখনই শুরু হয়ে গেছে মানুষের ঘরে ফেরার প্রস্তুতি। তাই অগ্রিম টিকেট পেতে যাত্রীরা ভিড় জমাচ্ছেন রেলস্টেশনের টিকেট কাউন্টারগুলোতে। আজ শুক্রবার রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, আগামী ১৯ আগস্টের অগ্রিম টিকেট পাওয়ার জন্য ভিড় জমিয়েছেন যাত্রীরা। ২০ আগস্টের টিকেট বিক্রি হবে শনিবার। তবে সেই টিকেট পেতেও আজ লাইনে দাঁড়িয়েছেন অনেকেই। ফলে অগ্রিম টিকেট বিক্রির আজ তৃতীয় দিনে টিকেটপ্রত্যাশীদের লাইন কাউন্টার থেকে ছাড়িয়ে গেছে সড়ক পর্যন্ত।

জানা যায়, আজ সকাল ৮টা থেকে টিকেট বিক্রি শুরু হয়। কিন্তু টিকেট পেতে গতকাল থেকেই জড়ো হতে শুরু করেন টিকেট প্ত্যাশীরা। দেখা যায়, একদিন, এক রাত দাঁড়িয়ে থেকেও লাইনের শেষ যাত্রীটি অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছেন। অধৈর্য হয়ে পড়তে দেখা যায় অনেক মানুষকে।

অনেক যাত্রী জানান কাউন্টার স্বল্পতার কথা। দেখা যায়, প্রতিবছরের মতো এবারো নারী টিকেটপ্রত্যাশীদের জন্য আলাদা কাউন্টার বসানো হয়েছে। তবে একটি কাউন্টার যথেষ্ট নয় বলে অভিযোগ নারীদের।

এক নারী (২৫) বলেন, কালকেও ঘুরে গেছি। আজকেও মনে হয় না পাব।

তার পাশে দাঁড়ানো আরো নারী (২৫) যাত্রী বলেন, দুইটা কাউন্টারের জায়গায় একটা কাউন্টার থেকে টিকেট দিচ্ছে। ছেলেদের কেন দুইটা কাউন্টার দেবে?

একই লাইনে দাঁড়ানো এক তরুণী (২২) বলেন, কালকে সন্ধ্যা থেকে এইখানে আছি। আর এখন কয়টা বাজে?
অসহ্য গরমে অতিষ্ঠ হওয়ার ক্ষোভ শোনা গেল আরেক যাত্রীর (৪০) কাছে। তিনি বলছিলেন, ফ্যান নাই, গরমে এতক্ষণ কীভাবে থাকে মানুষ?

পুরুষদের লাইনে দাঁড়ানো এক ব্যক্তি বলেন, কালকে সারাটা দিন, সারাটা রাত জাগার পর প্রথম সিরিয়ালটা যাতে পাই এ জন্য লাইনে দাঁড়ানো। শেষজন হিসেবে লাইনে দাঁড়াইছি। ১৯ তারিখের টিকেট কাটবো। পাব কি না জানি না।

তবে রেল কর্তৃপক্ষ বলছে, সীমিত সম্পদ দিয়ে যাত্রীদের সর্বোচ্চ সেবা দেয়ার চেষ্টা করছেন তারা।
কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের ব্যবস্থাপক সীতাংশু চক্রবর্তী বলেন, ২৬ হাজার ৮৯৫টি টিকেট ইস্যু করছি আজকে।

ঢাকা প্রতিদিন ডটকম/১০ আগস্ট/এসকে

Loading...

Check Also

ঘরেই পরীক্ষা করুন দাঁতের ক্ষয়

লাইফস্টাইল ডেস্ক, ঢাকা প্রতিদিন.কম ২২ অক্টোবর : দাঁতে ক্যারিজ বা ক্ষয়, গর্ত এসব কিন্তু মানুষের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *